,


সংবাদ শিরোনাম:

একটি ছিনতাই ও ডাক্তারি পেশা

একটি ছিনতাই ও ডাক্তারি পেশা

নাজমুস সাকীব অভিঃ

প্রত্যেক পেশাই চ্যালেঞ্জিং। তারপরও ‘ডাক্তার’ পেশাটা মনে হয় একটু বেশিই চ্যালেঞ্জিং। কারণ এই পেশার সাথে আক্ষরিক অর্থেই মানুষের জীবন জড়িত। তবু বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে ডাক্তাররা অনেকক্ষেত্রেই প্রাপ্য সম্মানটা পান না। পান থেকে চুন খসলেই তাদের ‘কসাই’ বলতে আমরা দ্বিধা করিনা। মানুষের সুচিকিৎসা নিশ্চিত করা ডাক্তারদের দায়িত্ব। মৃত্যুপথযাত্রী কোনো রোগীকে সুস্থ করাও উনাদের শুধুই ‘দায়িত্ব’ পালনের মধ্যেই পরে। কারণ এটাই তাদের পেশা। কিন্তু মাঝে মাঝে এর বাইরেও এমন কিছু ঘটনা ঘটে যেটা আমাদের অবশ্যই নজরে আসা উচিত।

 সাম্প্রতিক সময়ে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে এরকমই একটা ঘটনা ঘটেছে। গত ০৪ অক্টোবর, ২০১৯ তারিখে ছিনতাইকারীর ছুরিকাঘাতে গুরুতর আহত হয়ে ওসমানী মেডিকেলে ভর্তি হোন এই মেডিকেল কলেজেরই ইন্টার্ন চিকিৎসক আফসারা তাসনীম মম। ঘটনার প্রেক্ষিতে পুলিশ ছিনতাইকারীকে গ্রেফতার করার সময় ছিনতাইকারী আঘাতপ্রাপ্ত হলে তাকেও ওসমানী মেডিকেলে চিকিৎসা দিতে ভর্তি করা হয়।

আফসারা মম যখন অপারেশন থিয়েটারে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছেন, একই সময়ে তাঁরই সহকর্মী-বন্ধুরা ক্ষোভ, ঘৃণা, প্রতিহিংসা দমিয়ে রেখে ছিনতাইকারীর চিকিৎসা করছেন। আমরা যখন অপরাধীর শাস্তি চাইছি, অমঙ্গল কামনা করছি, তাঁরা তখন অপরাধীর সুস্থতার চেষ্টা করছেন, শুধুই পেশাগত দায়িত্ব পালনের কারণে। যা অনেক মর্মস্পর্শী। বর্তমান অসহিষ্ণু সমাজের এ ঘটনা থেকে অনেক কিছু শেখার আছে। সর্বশেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত ছিনতাইকারী সুস্থ হয়ে হাজতে আছে। আর আফসারা তাসনীম মম এখনো চিকিৎসাধীন ।

Share

Comments are closed.