,


সংবাদ শিরোনাম:

‘সাকিবের অনুপস্থিতি দলের পারফরমেন্সে প্রভাব ফেলবে’

‘সাকিবের অনুপস্থিতি দলের পারফরমেন্সে প্রভাব ফেলবে’

 

ভারত সফরে আসন্ন তিন ম্যাচ টি-২০ ও দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজে সাকিব আল হাসানের অনুপস্থিতি বাংলাদেশ দলের পারফরমেন্সে প্রভাব ফেলবে মনে করছেন টাইগার কোচ রাসেল ডোমিঙ্গো। তবে দলে থাকা খেলোয়াড়রা শক্তিশালী স্বাগতিকদের চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিতে সক্ষম হবে আশা করছেন তিনি।

ভারতীয় এক জুয়াড়ির কাছ থেকে পাওয়া প্রস্তাব আইসিসির কাছে রিপোর্ট করতে ব্যর্থ হওয়ায় সাকিবকে দুই বছরের জন্য যার মধ্যে এক বছরের নিষেধাজ্ঞা দেয়া হয়। তিন ম্যাচ টি-২০ ও দুই টেস্টের সিরিজ খেলতে ভারতের উদ্দেশ্যে রওনা দেয়ার আগ মুহূর্তে সাকিবের বাংলাদেশ দলের জন্য একটা বড় ধাক্কা।

আগামী রবিবার দিল্লিতে প্রথম টি-২০ ম্যাচের আগে বিষয়টি স্বীকার করে ডোমিঙ্গে বলেন, ড্রেসিং রুমে এ কস্ট থেকে পরিত্রাণ পাওয়ার চেষ্টা করছেন দল।

ফিরোজ শাহ কোটলা স্টেডিয়ামে বাংরাদেশ দলের অনুশীলন শেষে আজ এক সংবাদ সম্মেলনে ডোমিঙ্গো বলেন, ‘দীর্ঘ দিন যাবতই সে বাংলাদেশ দলের বড় খেলোয়াড় এবং অনেক ক্রিকেটারেরই ঘনিষ্ট বন্ধু। সুতরাং তার নিষেধাজ্ঞা অবশ্যই কিছু খেলোয়াড়কে প্রভাবিত করেছে। অবশ্যই সে একটা ভুল করেছে এবং যার মূল্য সে পাচ্ছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘এ ক্ষেত্রে আমাদের খুব বেশি কিছু করার নেই। অবশ্যই এটা দলের পারফরমেন্সে প্রভাব ফেলবে। তবে আমাদের আসন্ন সিরিজ ও বিশ্বকাপের প্রতি নজর দিতে হবে।’

মাত্র এক মাস আগে বাংরাদেশ দলের কোচের দায়িত্ব নেয়া ডোমিঙ্গে মূলত এখনো সাকিবের সঙ্গে কাজ করার খুব বেশি সুযোগ পাননি। তবে ড্রেসিং রুমে বিশ্ব সেরা অলরাউন্ডারের যথেষ্ঠ প্রভাব আছে সেটি বুঝতে পেরেছেন দক্ষিণ আফ্রিকার ডোমিঙ্গো।

কোচ বলেন, ‘ব্যক্তিগভাবে তার বিষয়ে জানার সুযোগ আমার হয়নি। তবে তার প্রতি খেলোয়াড়দের অপরিসীম শ্রদ্ধা আছে। তবে আমি যা বলছিলাম, সে একটা ভুল করেছে এবং তার মূল্য পেয়েছে।’

ব্যাট-বলে দক্ষতার কারণেই তিন ফর্মেটে এগার হাজারের বেশি রান পাঁচ শতাধিক উইকেট শিকার করা সাকিবের অনুপস্থিতি অবশ্যই অনুভুত হবে স্বীকার করেন ডোমিঙ্গো।

বিষয়টি ব্যখ্যা করে ডোমিঙ্গো বলেন, ‘সে তিন নম্বরে ব্যাট করে, কখনো কখনো বোলিং শুরু করেন। প্রতিটি ম্যাচেই প্রথম সুযোগেই চার ওভার বোলিং করেন। সে আমাদের সেরা ব্যাটসম্যানদের একজনও। সুতরাং তার বদলি ব্যাটসম্যান কিংবা বোলার নিয়ে সিদ্ধান্ত নিতে হবে।
‘কেননা ব্যাট-বল উভয় ক্ষেত্রে দক্ষতা সম্পন্ন একজন খুঁজে পাওয়াটা কঠিন। সেক্ষেত্রে দেখা যাবে আপনি হয়তোবা এক বিভাগে কাউকে পেলেন এবং এক বিভাগকেই শক্তিশালী করলেন।’

এ ছাড়া তামিম ইকবালও ব্যক্তিগত কারণে এ সফরে নেই। তাই দলের সীমিত সম্পদ নিয়ে পুরোপুরি সচেতন এবং হাতে থাকা অস্ত্রের সর্বোচ্চ ব্যবহার করতে চান ডোমিঙ্গো।

তিনি বলেন, ‘এটা নির্ভর করবে কন্ডিশনের উপড়। ফ্লাট উইকেট হলে আমরা একজন অতিরিক্ত বোলার ব্যবহার করব এবং ততটা না হলে আমরা একজন অতিরিক্ত ব্যাটসম্যান খেলাবো। সাকিবের জায়গা পুরন করা কঠিন। তবে যারা আছে তাদের চেষ্টা করতে হবে সেরাটা দেয়ার।’

Share

Comments are closed.