,


সংবাদ শিরোনাম:
«» অপহরনের চার ঘন্টার মধ্যে তরুণীকে উদ্ধার করল পুলিশঃ «» ৩ ডাক্তারের যৌন কেলেঙ্কারী ফাঁস করলেন সাবেক ছাত্রী «» পাউডারে ক্যান্সার: জনসন অ্যান্ড জনসনকে ৫ কোটি ডলার জরিমানা «» সিলেটে বেকার হচ্ছে ১৩ হাজারের মত সিএনজি চালক! «» এমপির ছোঁয়ায় কোটিপতি কে এই ‘ট্রলার মোস্তাক’? «» স্মরণকালের রেকর্ড ভঙ্গ, রংপুর গ্রামাঞ্চলে পিয়াজের কেজি ৩০০ «» পেঁয়াজের দাম বৃদ্ধির প্রতিবাদে বিএনপির সমাবেশ সোমবার «» সিলেটে শতাধিক অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ «» পর্যায়ক্রমে প্রধানমন্ত্রীর অঙ্গিকার বাস্তবায়নে প্রতিটি গ্রামের ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ পৌঁছে দেয়ার ব্যবস্থা হচ্ছে,,,এমপি রতন «» জগন্নাথপুরে পানিতে শিশু নিহতের তিনমাস পর আদালতে মামলা : হয়রানিমূলক মিথ্যা মামলার অভিযোগ আসামীদের

রবীন্দ্রনাথের কাছে পূর্ব বাংলার মানুষ ছিল অভিজ্ঞতার জায়গা:- সেলিনা হোসেন

রবীন্দ্রনাথের কাছে পূর্ব বাংলার মানুষ ছিল অভিজ্ঞতার জায়গা:- সেলিনা হোসেন

 

শাবি প্রতিনিধি::

বিশিষ্ট কথা সাহিত্যিক সেলিনা হোসেন বলেছেন কবি রবীন্দ্রনাথের কাছে পূর্ব বাংলার মানুষ ছিল অভিজ্ঞতার জায়গা। রবীন্দ্রনাথ বহুবার এই পূর্ববাংলার বিভিন্ন স্থানে আগমন করেন। এই পূর্ব বাংলার মানুষ তাকে সংবর্ধনা দিয়েছে নিজের জায়গা থেকে। কবিও এসব মানুষের উদ্দেশ্যে যথার্থ বক্তৃতা প্রদান করেছে। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় সিলেটের শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে বাংলা বিভাগের শিল্প-সাহিত্য ও সংস্কৃতি বিষয়ক গবেষণাধর্মী পত্রিকা ‘অবিদ্যা’ এর আয়োজনে “পূর্ববঙ্গ থেকে বাংলাদেশ: রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর ও শেখ মুজিবুর রহমান” শীর্ষক আলোচনা সভায় প্রবন্ধ পাঠে প্রধান বক্তা হিসেবে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, রবীন্দ্রনাথ প্রথম যখন এই পূর্ব বাংলায় আসেন,তখন তিনি বলেন পূর্ববাংলার ভূমি যেমন উর্বর, এখানকার মানুষের মস্তিষ্কও উর্বর। একজন রবীন্দ্রনাথ প্রথম যখন নোবেল পুরষ্কার পায়, তখন ভারতবাসীর চাইতে এই পূর্ব বাংলার বাঙালিরাই অনেক বেশি খুশি হয়েছিল।

তিনি বঙ্গবন্ধু নিয়ে বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সর্বদা রবীন্দ্রনাথকে শ্রদ্ধার সাথে দেখতেন। বঙ্গবন্ধু যখন ১৯৬৬ সালে ছয়দফা পেশ করেন এরপর ৬৭তে পথ সভা করলে প্রত্যেকটি পথসভায় আমার সোনার বাংলা গানটি গাওয়ার পর ছয়দফার বিষয়গুলো তুলে ধরতেন। এভাবেই রবীন্দ্রনাথকে বঙ্গবন্ধু শ্রদ্ধার অগ্নিশিখায় রাখতেন। এছাড়া আগরতলা ষড়যন্ত্র মামলা থেকে বের হয়ে সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে বঙ্গবন্ধু পাকিস্তান সরকারের প্রতি ঘোষণা দেন রবীন্দ্র সংগীত শুনতে দিতে হবে, রবীন্দ্র আমাদের পড়তে দিতে হবে। বঙ্গবন্ধু তার রাজনৈতিক প্রজ্ঞা দিয়ে একজন সাংস্কৃতিক কবিকে শুধু শ্রদ্ধাই করেন নি, আশ্রয় দিয়েছে সর্বোচ্চ স্থানে।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষাভবন “বি” এর ৩০৪ নম্বর কক্ষে এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। শিল্প-সাহিত্য ও সংস্কৃতি বিষয়ক গবেষণাধর্মী পত্রিকা ‘অবিদ্যা’ এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। অনুষ্ঠানে বাংলা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মাসুদ পারভেজ এর সঞ্চালনায় শুভেচ্ছা বক্তব্য প্রদান করেন বিশিষ্ট কথা সাহিত্যিক ও লেখক অধ্যাপক ড.মুহাম্মদ জাফর ইকবাল, বাংলা বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড.জফির সেতু।

আলোচনা অনুষ্ঠানে বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষক এবং শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।

Share

Comments are closed.