,


সংবাদ শিরোনাম:

জৈন্তাপুরে আ:লীগ নিয়ে অপ-প্রচার,হতবাক সাধারণ মানুষ;

জৈন্তাপুরে আ:লীগ নিয়ে অপপ্রচার,হতবাক সাধারণ মানুষ;

রাজু বিশ্বাস দুর্জয়ঃ জৈন্তাপুর:

২০১৫ সালের ৩১ জানুয়ারি আওয়ামী লীগের সম্মেলনে সিলেটের জৈন্তাপুর উপজেলার ৪ সদস্য বিশিষ্ট উপজেলা কমিটি ঘোষণা করা হয়।কমিটিতে সভাপতি আলহাজ্ব আব্দুলাহ, সহ-সভাপতি কামাল আহমদ,সাধারন সম্পাদক এম লিয়াকত আলী ও যুগ্ম-সাধারন সম্পাদকের দায়িত্ব পান ফয়েজ আহমদ বাবর।

কমিটি গঠনের পর ১৮ মার্চ ২০১৮ আলহাজ্ব আব্দুল্লাহ মারা গেলে উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতির দায়িত্ব নেন বর্তমান উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি কামাল আহমদ।

সিলেটের কর্মী সম্মেলনে মাহবুবুল আলম হানিফ বলেন ২০১৫ সালে যেসব কমিটি কর্মী সম্মেলনের মাধ্যমে গঠন করা হয়েছে তা অতি শীঘ্রই পুর্নাঙ্গ কমিটিতে রুপান্তরিত করা হবে। এ নিয়ে জৈন্তাপুর উপজেলা আওয়ামী লীগে সৃষ্টি হয়েছে চাঞ্চল্য। কেননা জৈন্তাপুরের সাধারণ মানুষ বর্তমান উপজেলা আওয়ামী লীগ কমিটিকেই পুর্নাঙ্গ কমিটিতে দেখতে চায়।কিন্তু জৈন্তাপুরের সাধারণ মানুষ চাইলেই কি সম্ভব? একদল কুচক্রী ও স্বার্থনেশী মহল উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এম.লিয়াকত আলীকে নিয়ে উপজেলা আওয়ামী লীগের দুর্নাম করে যাচ্ছে।

উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক লিয়াকত আলী জানান একটা বিষয় লক্ষ্য করলাম বিগত উপজেলা পরিষদ নির্বাচনকালীন সময়ে একটি কুচক্রী মহল উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক নৌকা মার্কার প্রর্থীতা করায় আমার বিরুদ্ধে অপপ্রচারে লিপ্ত ছিল। উপজেলা নির্বাচন শেষ হলে উনাদেরকে আর পাওয়া গেল না।আমার বদনাম করার লোক কমে গেল আবার এখন যখন প্রিয় নেত্রী মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা তৃনমূল আওয়ামীলীগকে সু-সংগঠিত কারার উদ্যোগ নিয়েছেন ঠিক সেই সময় যারা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আদেশ অমান্য করে নৌকা মার্কার বিরুদ্ধে ছিল তারাই আবারো আমার বিরুদ্ধে অপপ্রচার শুরু করছে।

একটা বিষয় অপ-প্রচারকরীরা হয়ত জানেন না যে আমার এই যোগ্যতা এক দিনে সৃষ্টি হয় নাই। আমি ১৯৮৬ সাল থেকে জৈন্তাপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের এর কমিটিতে আছি। প্রথমে প্রচার সম্পাদক পরে যুগ্ম-সাধারন সম্পাদক ভারপাপ্ত সাধারন সম্পাদক বর্তমান কমিটির সাধারন সম্পাদক। আমি উড়ে এসে জুড়ে বসা লোক না। উপজেলাবাসীর নিকট আমি পরিক্ষিত মুজিব সৈনিক তাই সমালোচকরা চাইলেই আমাকে জৈন্তাবাসীর মন থেকে মুছে ফেলতে পারবেন না। অতি শীঘ্রই জৈন্তাপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের পুর্নাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করা হবে।

এ বিষয়ের সত্যতা নিশ্চিত করতে স্থানীয় কয়েকজন মুক্তিযুদ্ধা ও আওয়ামী লীগের অংগসংঘটনের নেতৃবৃন্দের সাথে কথা বলে জানা যায় যে, এম.লিয়াকত আলী একজন সৎ,নির্ভিক ও রাজপথের লড়াকু সৈনিক। নিজেদের স্বার্থ হাসিল করতে একদল কুচক্রী মহল বিভিন্ন মিডিয়াকে ভুয়া তথ্য দিয়ে মিথ্যে ও বানোয়াট সংবাদ প্রকাশ করছে। পুর্নাঙ্গ কমিটি ঘোষণার পুর্বে এমন অভুতপুর্ব আচরণের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে বলেন লিয়াকত আলী ছাড়া উপজেলা আওয়ামী লীগ লবণ ছাড়া তরকারির মত।

Share

Comments are closed.